Category: বাংলাদেশের পর্যটন

নোয়াখালী জেলার পরিচিতি

নোয়াখালী জেলা বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে চট্টগ্রাম বিভাগের একটি প্রশাসনিক অঞ্চল। বর্তমান নোয়াখালী জেলা আগে ফেনী, লক্ষীপুর এবং নোয়াখালী জেলা নিয়ে একটি বৃহত্তর অঞ্চল ছিল, যা এখনও বৃহত্তর নোয়াখালী নামে পরিচিত। পলিমাটি সমৃদ্ধ উপকূলীয় জেলা নোয়াখালী। এ উর্বর অঞ্চল এক সময় সমতট নামে সুপরিচিত ছিলো। সহস্র বছর ধরে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের সাথে যোগাযোগের কারণে ধীরে ধীরে সমৃদ্ধ […]

ইতিহাস ঐতিহ্য লামা উপজেলা

ইতিহাস ঐতিহ্য লামা উপজেলা নয়ন জুড়ানো সবুজ স্নিগ্ধ বনানী ঘেরা নৈসর্গিক সৌন্দর্য ও বিপুল প্রাকৃতিক সম্পদে ভরপুর অরন্যরানী লামা। এখানে রয়েছে সর্পিল ঢেউ খেলানো অসংখ্য ছোট-বড় পাহাড় ও পাহাড়ের বুক চিড়ে বহমান নদী। মনোরম দৃশ্যের সমাহার ও বৈচিত্র্যময় সাংস্কৃতিক উত্তরাধিকারে সমৃদ্ধ লামা, ঠিক যেন শিল্পীর পটে আঁকা ছবির মতন। সর্বত্র সবুজ-শ্যামল গিরি শ্রেনীর এক অপরূপ […]

আমাদের দেশে পর্যটন শিল্প

আমাদের মতো উন্নয়নশীল দেশে পর্যটন শিল্পের ভ‚মিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমান বিশ্বে কোনো কোনো দেশে জাতীয় আয়ের সিংহভাগ আসে এই পর্যটন শিল্প থেকে। এ কারণে উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশগুলোয় পর্যটন শিল্প প্রসারের লক্ষ্যে জাতীয়ভাবে উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে। এছাড়াও বিদেশিদের কাছে স্বদেশের সৌন্দর্য ও ভাবমূর্তিকে তুলে ধরার সহজ উপায় হলো পর্যটন শিল্পের প্রসার। পর্যটনের প্রতি আকৃষ্ট হয়েই […]

বিএসটিআই লাইসেন্স করার নিয়ম

  BSTI মানে হল – বাংলাদেশ স্টান্ডার্স এন্ড টেস্টিং ইন্সটিটিউশন এই প্রতিষ্ঠানের কাজ হল – খাদ্যদ্রব্য, কৃষিপণ্য, পাটবস্ত্র, রাসায়নিক পদার্থ এবং বৈদ্যুতিক প্রযুক্তি পণ্যের মান নিয়ন্ত্রণ এবং তদারকি করা। বর্তমানে বাংলাদেশে ১৫৪ টি পন্যেকে বাজারজাতকরন করতে হলে বাধ্যতামূলকভাবে BSTI এর অনুমোদন নিতে হবে। এছাড়া অন্যান্ন পন্য দ্রব্য চাইলেই BSTI এর অনুমোদন নিতে পারবে। অর্থাৎ সরকারি […]

বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রাচীন ও আবহমান বাংলার ঐতিহ্য ও গৌরবময় ইতিহাস

বাংলার বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা প্রাচীন ও আবহমান বাংলার ঐতিহ্য ও গৌরবময় ইতিহাস সবার সামনে তুলে ধরার জন্যই আমার এ খুদ্র প্রয়াসজাদুঘর বা মিউজিয়াম শব্দটির উৎপত্তি গ্রীক শব্দ ‘মউজিয়ন’ থেকে। গ্রীকদের কলাবিদ্যার দেবী মিউজেসের মন্দিরকে এক সময় মিউজিয়াম বলা হতো। খ্রীষ্টপূর্ব তৃতীয় শতকে মিশরের আলেকজান্দ্রাতে টলেমি লাইব্রেরি স্থাপন করেন এবং এর নাম দেন মিউজিয়ম, […]

ঢাকা নওয়াব পরিবার

  ঢাকা নওয়াব পরিবার ঢাকা নওয়াব পরিবার ব্রিটিশ সরকারের নিকট থেকে নওয়াব উপাধি পেয়ে ঢাকার ঐতিহ্যবাহী খাজা পরিবার ‘ঢাকার নওয়াব পরিবার’ হিসেবে প্রসিদ্ধি লাভ করে। উনিশ শতকের মধ্যভাগ থেকে পরবর্তী প্রায় এক শত বছর ধরে তাঁরা ছিলেন পূর্ব বাংলার সবচেয়ে প্রভাবশালী পরিবার। ঢাকার নওয়াব পরিবারের প্রতিষ্ঠাতা বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে কাশ্মীর থেকে বাংলায় আসেন।  উল্লেখ্য, তখন স্থল পথে […]

চট্টগ্রাম জেলা

চট্টগ্রাম জেলা চট্টগ্রাম জেলা (চট্টগ্রাম বিভাগ)  আয়তন: ৫২৮২.৯৮ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২১°৫৪´ থেকে ২২°৫৯´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯১°১৭´ থেকে ৯২°১৩´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে খাগড়ছড়ি ও রাঙ্গামাটি জেলা এবং ভারতের ত্রিপুরা রাজ্য, দক্ষিণে কক্সবাজার জেলা, পূর্বে বান্দরবান, রাঙ্গামাটি এবং খাগড়াছড়ি জেলা, পশ্চিমে নোয়াখালী জেলা ও বঙ্গোপসাগর। পাহাড়, নদী, সমুদ্র, নদী, অরণ্য, উপত্যাকা প্রভৃতি প্রাকৃতিক বৈশিষ্ট্যের জন্য […]

গাজীপুর জেলা

গাজীপুর জেলা গাজীপুর জেলা (ঢাকা বিভাগ)  আয়তন: ১৭৪১.৫৩ বর্গ কিমি। অবস্থান: ২৩°৫৩´ থেকে ২৪°২১´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৯০°০৯´ থেকে ৯২°৩৯´ পূর্ব দ্রাঘিমাংশ। সীমানা: উত্তরে ময়মনসিংহ এবং কিশোরগঞ্জ জেলা, দক্ষিণে ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ ও নরসিংদী জেলা, পূর্বে নরসিংদী জেলা, পশ্চিমে ঢাকা ও টাঙ্গাইল জেলা। জনসংখ্যা ২০৩১৮৯১; পুরুষ ১০৬৭৭২২, মহিলা ৯৬৪১৬৯। মুসলিম ১৮৭২৯৪৩, হিন্দু ১৩৭৬৭৮, বৌদ্ধ ২০১২৪, খ্রিস্টান ২৩৫ এবং […]

ময়নামতী কুমিল্লা

ময়নামতী কুমিল্লা ময়নামতী কুমিল্লা শহরের প্রায় ৮ কিলোমিটার পশ্চিমে বাংলাদেশের পূর্ব সীমায় বিচ্ছিন্ন অনুচ্চ পার্বত্য এলাকা, যা বাংলার সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যে এক পরিচিত নাম। এখানে প্রত্নতাত্ত্বিক খননকার্যের ফলে অত্যন্ত গুরত্বপূর্ণ নিদর্শনাদি উন্মোচিত হয়েছে। ঈষৎ লাল পুরাতন পললভূমির ইঙ্গিতবহ অঞ্চলটি প্রাচীন ইতিহাসের মাইল ফলক হিসেবে চিহ্নিত। মেঘনা বেসিনের ভাটিতে গোমতী নদী তীরস্থ ময়নামতী গ্রাম থেকে লালমাই রেলস্টেশনের […]

মানব পাচার পৃথিবীর ইতিহাসে জঘন্যতম একটি অপরাধ।

  মানব পাচার, লোভ ও নিষ্ঠুরতাসাগরপথে তাদের এনে গহিন জঙ্গলে লুকিয়ে রেখে সরে পড়ে পাচারকারীরা। আবার কখনো কখনো বন্দি অবৈধ অভিবাসীদের পরিবারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলিয়ে মুক্তিপণ চাওয়া হয়। যারা মুক্তিপণ দিতে পারে না তাদের মৃত্যু যে অবধারিত তা গণকবরের চিত্র দেখলেই ভালোভাবে উপলব্ধি করা যায়। মানুষের লোভ মানুষকে বর্বরতা নিষ্ঠুরতার চূড়ান্ত পর্যায়ে নিয়ে […]

মুন্সীগঞ্জ জেলা

মুন্সীগঞ্জ জেলার শ্রীনগর উপজেলার ইতিহাস।। মুন্সীগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার ইতিহাস।। মুন্সীগঞ্জ জেলার সিরাজদিখান উপজেলার ইতিহাস।।     Please follow and like us:0

নওগাঁ জেলা এবং বদলগাছী থানার অধীনস্থ পাহাড়পুর

পাহাড়পুর পাহাড়পুর (প্রত্নতাত্ত্বিক) নওগাঁ জেলা এবং বদলগাছী থানার অধীনস্থ পাহাড়পুর গ্রামে অবস্থিত বাংলাদেশের একটি গুরুত্বপূর্ণ প্রত্নস্থল। পাকা সড়কের মাধ্যমে গ্রামটির নিকটস্থ রেলস্টেশন জামালগঞ্জ এবং নওগাঁ জয়পুরহাট জেলা শহরের সঙ্গে যোগাযোগের ব্যবস্থা রয়েছে। এ প্রত্নস্থল উত্তরবঙ্গের প্লাবনভূমিতে অবস্থিত। বিস্তীর্ণ একটানা সমভূমির মাঝে এক সুউচ্চ (পার্শ্ববর্তী ভূমি থেকে প্রায় ২৪ মিটার উঁচু) প্রাচীন মন্দিরের ধ্বংসাবশেষ স্বভাবতই একে […]

ধনিয়াচক মসজিদ বাংলাদেশের একটি ঐতিহাসিক স্থাপত্য যার অবস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ছোট সোনা মসজিদেরসন্নিকটে।

ধনিয়াচক মসজিদ বাংলাদেশের একটি ঐতিহাসিক স্থাপত্য যার অবস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ছোট সোনা মসজিদেরসন্নিকটে। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা। গৌড়ের ইতিহাসসমৃদ্ধ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলায় শিবগঞ্জ মোঘল আমল এর বেশ সমৃদ্ধ একটি নগরী ছিলো। মোঘল আমলের অনেক স্থাপনার মধ্যে ধনিয়াচক মসজিদ একটি। অবকাঠামো ধনিয়াচক মসজিদটি বাংলার মুসলিম শাসনামলের মধ্যযুগীয় স্থাপত্যকলার এক অপূর্ব নিদর্শন। মসজিদ টি ঈট ও টেরাকোটা নির্মিত একটি মোঘল আমলের স্থাপত্য […]

বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার ভাসু বিহার 

  ভাসু বিহার বগুড়া জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার বিহার ইউনিয়নের অন্তর্ভুক্ত বিহার গ্রামের উত্তর দিকে মহাস্থানগড় থেকে প্রায় ৬ কিমি এবং নাগর নদী থেকে ৫০০ মিটার পশ্চিমে অবস্থিত। স্থানীয় অধিবাসীদের নিকট নরপতির ধাপ নামে পরিচিত ভাসু বিহার প্রত্নস্থলে প্রত্নতাত্ত্বিক খননের ফলে পরবর্তী গুপ্তযুগের দুটি আয়তক্ষেত্রাকার বৌদ্ধবিহার এবং একটি প্রায় ক্রুশাকৃতি মন্দির উন্মোচিত হয়েছে। প্রথম বিহার  উত্তর-দক্ষিণে ১৪৮.১৩ মিটার এবং পূর্ব-পশ্চিমে ১৩৯ […]

কান্তনগর মন্দির দিনাজপুর .

কান্তনগর মন্দির  ইটের তৈরি আঠারো শতকের মন্দির। দিনাজপুর শহর থেকে প্রায় ১৯ কি.মি উত্তরে এবং দিনাজপুর-তেতুলিয়া সড়কের প্রায় ২ কি.মি পশ্চিমে ঢেপা নদীর অপর পাড়ে এক শান্ত নিভৃতগ্রাম কান্তনগরে এ মন্দির স্থাপিত। বাংলার স্থাপত্যসমূহের মধ্যে বিখ্যাত এ মন্দির বিশিষ্টতার অন্যতম কারণ হচ্ছে পৌরাণিক কাহিনীসমূহ পোড়ামাটির অলঙ্করণে দেয়ালের গয়ে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। এ নবরত্ন বা ‘নয় […]

কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলায় অবস্থিত কুতুব মসজিদ 

কুতুব মসজিদ বা কুতুব শাহ মসজিদ কিশোরগঞ্জ জেলার অষ্টগ্রাম উপজেলায় অবস্থিত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন ও বাংলাদেশের একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটি সুলতানী আমলে নির্মিত বলে ধারণা করা হয়। কুতুব মসজিদটি আবিষ্কারের সময় এটিতে কোন শিলালিপি পাওয়া যায়নি বলে এর সঠিক নির্মাণকাল সম্পর্কে তেমন ধারণা পাওয়া যায় না। তবে স্থাপত্য রীতি ও আন্যান্য দিক বিবেচনা করে প্রত্নতত্ত্ববিদগণ ধারণা করেন এটি ১৬শ […]

লোহাগাড়ার আমিরাবাদের মোহাম্মদ খান ছিদ্দিকী (রহ:) নায়েবে উজির জামে মসজিদটি নির্মিত হয়।

মসজিদের গায়ের শিলালিপি অনুসারে ১৬৬৬ খ্রিষ্টাব্দে চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার আমিরাবাদের মোহাম্মদ খান ছিদ্দিকী (রহ:) নায়েবে উজির জামে মসজিদটি নির্মিত হয়।   মুঘল আমলে নির্মিত আয়তাকার আকৃতির এ মসজিদের ৩টি বড় গম্বুজ রয়েছে, যা স্থাপত্য শৈলীর অপূর্ব নিদর্শন। মসজিদের উত্তর পাশে দীঘি, পূর্ব পাশে পুকুর রয়েছে। মসজিদের নামে ৩৬০ দ্রোন জমি বরাদ্দ ছিল। মসজিদে এক সাথে প্রায় […]

ঝিনাইদহের জোড়াবাংলা মসজিদ।

ঝিনাইদহের বারোবাজার মৌজায় এ মসজিদটি অবস্থিত প্রকৃতির নিদর্শন বড়ই অপূর্ব। কিন্তু মানুষের তেরী কিছু প্রাচীন আবিষ্কার আমাদের মন ছুয়ে যায়। তেমনি এক নিদর্শন ঝিনাইদহের জোড়াবাংলা মসজিদ। এটি ঝিনাইদহের ঐতিহ্য ধরে রেখেছে। ঝিনাইদহের বারোবাজার মৌজায় এ মসজিদটি অবস্থিত।পূর্বাতিহাস, ১৯৯২-৯৩ সালে প্রত্বতত্ব বিভাগ কর্তৃক খননের সময় এর অস্তিত্ব খুঁজে পায় এক গম্বুজ বিশিষ্ট এ মসজিদটি। মসজিদটির ডানপাশে […]

পুরানো ঢাকার তারা মসজিদ 

তারা মসজিদ পুরানো ঢাকার আরমানিটোলায় আবুল খয়রাত সড়কে অবস্থিত। সাদা মার্বেলের গম্বুজের ওপর নীলরঙা তারায় খচিত এ মসজিদ নির্মিত হয় আঠারো শতকের প্রথম দিকে। মসজিদের গায়ে এর নির্মাণ-তারিখ খোদাই করা ছিল না। জানা যায়, আঠারো শতকে ঢাকার ‘মহল্লা আলে আবু সাঈয়ীদ’-এ (পরে যার নাম আরমানিটোলা হয়) আসেন জমিদার মির্জা গোলাম পীর (মির্জা আহমদ জান)। ঢাকার ধণাঢ্য ব্যক্তি মীর আবু সাঈয়ীদের নাতি ছিলেন তিনি। মির্জা গোলাম […]

চকবাজার শাহী মসজিদ বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের পুরানো ঢাকাএলাকার চকবাজারে অবস্থিত

চকবাজার শাহী মসজিদ বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের পুরানো ঢাকাএলাকার চকবাজারে অবস্থিত একটি মোগল আমলের মসজিদ। মোগল সুবেদার শায়েস্তা খান এটিকে ১৬৭৬ খ্রিস্টাব্দে নির্মাণ করেন, মসজিদে প্রাপ্ত শিলালিপি থেকে এই ধারণা করা হয়। এই মসজিদটিই সম্ভবত বাংলায় উঁচু প্লাটফর্মের উপর নির্মিত প্রাচীনতম ইমারত-স্থাপনা। প্লাটফর্মটির নিচে ভল্ট ঢাকা কতগুলো বর্গাকৃতি ও আয়তাকৃতি কক্ষ আছে। এগুলোর মাথার উপরে খিলান ছাদ রয়েছে, যার উপরের অংশ অবশ্য সমান্তরাল। ধারণা […]

গোয়ালদীর গায়েবী মসজিদ  ১৫১৯ খ্রিস্টাব্দে নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও-এ অবস্থিত।

গোয়ালদীর গায়েবী মসজিদ বাংলাদেশের সোনারগাঁও এ অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। সুলতান আলাউদ্দীন হোসেন শাহের আমলে মোল্লা হিজাবর খান ১৫১৯ খ্রিস্টাব্দে এটি নির্মাণ করেন।গোয়ালদীর গায়েবী মসজিদটি বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা শহরের নিকটবর্তী নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও-এ অবস্থিত।   বাংলাদেশেরঐতিহাসিক রাজশাহী বাঘা বাড়ি মসজিদ চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাট বাজারে ‘গৌরের রত্ন’ পাশেই ছোট সোনা মসজিদ বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটি ষাট গম্বুজ মসজিদ মোঘল সাম্রাজ্যের অপরূপ স্থাপত্য শিল্পের […]

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ছোট সোনা মসজিদের সন্নিকটে খনিয়াদিঘি মসজিদ

খনিয়াদিঘি মসজিদ বাংলাদেশের একটি ঐতিহাসিক স্থাপত্য যার অবস্থান চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার ছোট সোনা মসজিদের সন্নিকটে। এটি আনুমানিক ১৫’দশ শতকে নির্মিত হয়েছিলো। এটি স্থানীয়ভাবে চামচিকা মসজিদ এবং রাজবিবি মসজিদ নামেও পরিচিত। ১৪৫০ থেকে ১৫৬৫ খ্রিস্টাব্দ অবধি গৌড় ছিল তৎকালীন বাংলার রাজধানী ; এ সময়ই এ মসজিদটি নির্মিত হয়েছিল। এই মসজিদের পাশে বিশাল এক দিঘি রয়েছে যার নাম খনিয়া দিঘী নামে পরিচিত। কাছাকাছি আরেকটি মসজিদের নাম দারাসবাড়ি মসজিদ। মসজিদটি দীর্ঘকাল আগে পরিত্যাক্ত […]

কিসমত মারিয়া মসজিদ রাজশাহী

কিসমত মারিয়া মসজিদ রাজশাহী শহরের অদূরে দুর্গাপুর উপজেলায় অবস্থিত বাংলাদেশের একটি প্রাচীন মসজিদ। আনুমানিক ১৫০০ সালে এটি নির্মিত হয়েছিল। এটি বাংলাদেশ প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তর এর তালিকাভুক্ত একটি প্রত্নতাত্ত্বিক স্থাপনা। এই মসজিটটি রাজশাহী জেলার দূর্গাপুর উপজেলার মারিয়া গ্রামে অবস্থিত। রাজশাহী সদর হতে রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়ক ধরে প্রায় ১৩ কি.মি. গেলে শিবপুর বাজার নামক স্থান হতে প্রত্নতত্ত্ব অধিদপ্তরের সাইনবোর্ড ধরে এগিয়ে ৪-৫ কি.মি. গেলে […]

বগুড়ার শেরপুর উপজেলার শাহবন্দেগী ইউনিয়নের তিন গম্বুজ বিশিষ্ট খেরুয়া মসজিদ।

খেরুয়া মসজিদ বাংলাদেশের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ প্রত্ননিদর্শন। মুঘল-পূর্ব সুলতানি আমলের স্থাপত্যশৈলীর সঙ্গে মোগল স্থাপত্যশৈলীর সমন্বয়ে নির্মিত এই মসজিদ। প্রায় ৪৩৫ বছর ধরে টিকে থাকা এই মসজিদের অবস্থান বগুড়া শহর থেকে ২০ কিলোমিটার দক্ষিণে শেরপুর উপজেলা সদরের খোন্দকার টোলা মহল্লায় তিন গম্বুজ বিশিষ্ট খেরুয়া মসজিদ। সুলতানি আমলের নির্মাণ শৈলীর সঙ্গে যথেষ্ট মিল রয়েছে এসব গম্বুজের। নকশাবিহীন গম্বুজগুলো যেন […]

মোঘল সাম্রাজ্যের অপরূপ স্থাপত্য শিল্পের এক অপূর্ব নিদর্শন বাবা আদম মসজিদ।

মোঘল সাম্রাজ্যের অপরূপ স্থাপত্য শিল্পের এক অপূর্ব নিদর্শন বাবা আদম মসজিদ। সুদূর আরব দেশে জন্মগ্রহণ করেও ইসলাম ধর্ম প্রচারে ভারতবর্ষে এসেছিলেন আধ্যাত্মিক সাধক বাবা আদম। উপমহাদেশে সেন শাসনামলে ১১৭৮ সালে ধলেশ্বরীর তীরে মুন্সিগঞ্জের মিরকাদিমে আসেন তিনি। তখন বিক্রমপুর তথা মুন্সিগঞ্জ ছিল বল্লাল সেনের রাজত্বে। ওই বছরই বল্লাল সেনের হাতে প্রাণ দিতে হয় তাঁকে। শহীদ বাবা […]

বাংলাদেশের তিনটি বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থানের একটি ষাট গম্বুজ মসজিদ

ষাট গম্বুজ মসজিদ বাংলাদেশের বাগেরহাট জেলার দক্ষিণ-পশ্চিমে অবস্থিত একটি প্রাচীন মসজিদ। মসজিদটির গায়ে কোনো শিলালিপি নেই। তাই এটি কে নির্মাণ করেছিলেন বা কোন সময়ে নির্মাণ করা হয়েছিলো সে সম্বন্ধে সঠিক কোনো তথ্য পাওয়া যায় না। তবে মসজিদটির স্থাপত্যশৈলী দেখলে এটি যে খান-ই-জাহান নির্মাণ করেছিলেন সে সম্বন্ধে কোনো সন্দেহ থাকে না। ধারণা করা হয় তিনি ১৫শ […]

চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাট বাজারে ‘গৌরের রত্ন’ পাশেই ছোট সোনা মসজিদ

মসজিদে প্রাপ্ত একটি শিলালিপি থেকে জানা যায়, সুলতান আলা-উদ-দীন শাহের শাসনামলে ওয়ালী মোহাম্মদ নামের এক ব্যক্তি প্রাচীন গৌড় নগরীর উপকণ্ঠে অবস্থিত ফিরোজপুর গ্রামে এটি প্রতিষ্ঠা করেন। সে কারণে অনেকের কাছেই এটির অন্য পরিচয় ছিল ‘গৌরের রত্ন’ হিসেবে। যদিও মসজিদটির বাইরের সোনালি রঙের আস্তরণটিই একে সোনা মসজিদ নামে পরিচিত করে তোলে। এদিকে প্রাচীন গৌড়ে সুলতান নুসরত […]

বাংলাদেশেরঐতিহাসিক রাজশাহী বাঘা বাড়ি মসজিদ

স্থাপত্যের এক অপূর্ব নিদর্শন বাঘা মসজিদ। মসজিদের গায়ের কারুকার্য গুলো নিপুন হাতের ছোঁয়ায় তৈরী।  সমভুমি থেকে থেকে ৮-১০ ফুট উঁচু করে মসজিদের আঙিনা তৈরি করা হয়েছে। উত্তর পাশের ফটকের ওপরের স্তম্ভ ও কারুকাজ ধ্বংসপ্রাপ্ত হয়েছে। মসজিদটিতে ১০টি গম্বুজ আছে । আর ভেতরে রয়েছে ৬টি স্তম্ভ। মসজিদটিতে ৪টি মেহরাব রয়েছে যা অত্যন্ত কারুকার্য খচিত। দৈর্ঘ্য ৭৫ […]

মোঘল স্থাপত্যের অপূর্ব নিদর্শন শাহ সুজা মসজিদ 

মোঘল স্থাপত্যের অপূর্ব নিদর্শন শাহ সুজা মসজিদ    কুমিল্লা শহরের মোঘলটুলী এলাকার গোমতী নদীর কোল ঘেঁষে দাঁড়িয়ে আছে মোঘল আমলের অপরূপ কীর্তি শাহ সুজা মসজিদ। শোনা যায়, শাহ সুজার সৈন্যরা যেখানে শিবির করেছিলেন তার নাম বর্তমানে সুজানগর আর শাহ সুজা নিজে এ মসজিদ এলাকাতেই তাবু গড়েছিলেন। এজন্য এ এলাকার নাম মোঘলটুলি। শাহ সুজা মসজিদ কুমিল্লার […]

Rustic Enterprise Performance Management System © 2017 Frontier Theme
Translate »

Enjoy this blog? Please spread the word :)

Advertisment ad adsense adlogger